খুঁজুন
সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ়, ১৪৩১

মুক্তাগাছার বহিস্কৃত যুব মহিলালীগ নেত্রীর অপকর্ম ফাঁসঃ ক্ষুন্ন হচ্ছে দলীয় ভাবমূর্তি

রাকিবুল হাসান আহাদঃ
প্রকাশিত: শনিবার, ৬ এপ্রিল, ২০২৪, ৫:৪২ পিএম
মুক্তাগাছার বহিস্কৃত যুব মহিলালীগ নেত্রীর অপকর্ম ফাঁসঃ ক্ষুন্ন হচ্ছে দলীয় ভাবমূর্তি

গত ০৫ এপ্রিল ২৪ইং (শুক্রবার) মুক্তাগাছা উপজেলা বহিষ্কৃত যুব মহিলা লীগ সভাপতি ইসরাত জাহান (তনু্র সংবাদ সম্মেলন ছিলো তার সকল কুকর্ম ধামাচাপা দিতেই আমার নামে তনুর করা সকল অভিযোগ ও নির্যাতন বিষয় মিথ্যা ও মনগড়া বলে দাবী করেছেন তার স্বামী মো. খায়রুল ইসলাম মনি । তিনি তনুর মিথ্যা অপবাদের প্রতিবাদেই সংবাদ সম্মেলন করছেন বলে জানান ।

মো.খায়রুল ইসলাম মনি জানান, তিনি বিয়ে করেন ০১ মার্চ ২০১৯ ইং সালে। তাকে নিয়ে সংসার শুরু করেন ঢাকা উত্তরার ১৩ নাম্বার সেক্টরে । তার অগোচরে সেখানেও তার স্ত্রী যুব মহিলালীগের বহিস্কৃত নেত্রী জান্নাত জানান তনু শুরু করে তার লিলা খেলা । রানা, সবুজ ও জাহাঙ্গীর কতিথ বন্ধু নামক সাহেদের সাথে । তার এসব কাহিনী স্বামীর কাছে ধরা পরে এবং তার অবর্তমানে রাতের আঁধারে তার রসিক নাগর রানা সাহেবকে তার স্বামী সাজিয়ে বাসার মালিককে কল করে মো. খায়রুল ইসলাম মনি”র ভাড়াকৃত বাসার সকল মালামাল নিয়ে তনু মুক্তাগাছা চলে আসে এবং মুক্তাগাছা মো.খায়রুল ইসলাম মনি’র ভাড়ায় থাকা বাসার মালিক নারায়ণ কাকার নিকট আগের স্বামী মেহেদীকে উপস্থাপন করে বাসা ভাড়া নেন, পরবর্তীতে আবার মো.খায়রুল ইসলাম মনি”র সাথে যোগাযোগ করে ক্ষমা চায়। মাফ করে দিয়ে তাদের সকল খরচ বহন করে সুখ ও শান্তির আশায় আবার সংসার জীবন শুরু করেন মো.খায়রুল ইসলাম মনি । তার সকল কুকর্মের কাহিনীর প্রমাণ মো.খায়রুল ইসলাম মনি’র কাছে আছে বলে জানান ।

মো.খায়রুল ইসলাম মনি আরো জানান, ২১ আগষ্ট ২১ ইং দিবাগত রাতে মুক্তাগাছা নারায়ণ কাকার বাসার ২য় তলায় আপত্তিকর অবস্থায় আগের তালাক দেওয়া স্বামী মেহেদি ও তনুসহ হাতেনাতে ধরে ফেলেন স্বশরীরে। তাদের আটক করেন , মান সম্মানের কারনে বাসার মালিক নারায়ণ কাকা ও এস আই শরিফুল ইসলাম সহ অন্যান লোকজন এসে মেহেদিকে বাসা থেকে রের করে দেয় এবং তনু ও তার মা ক্ষমা চায় । তাদের সকলের কথায় তনুকে ক্ষমা করে দিয়ে সংসার আবার শুরু করেন ।

মুক্তাগাছায় নারায়ণ এর বাসায় তনু থাকা অবস্থায় তার দূর সম্পর্কের কাকা মতি ডাক্তার বাবুলের হাতে তুলে দেন তাকে রাজনীতি শেখাতে । এরপর শুরু হয় লিলা খেলা বাবুল নামের ৬০ বছরের পুরুষের সাথে এবং রসিক বাবুল সাহেবের সহায়তায় ও প্ররোচনায় মো. খায়রুল ইসলাম মনিকে তালাক প্রদান করে এবং ঐ দিনেই আদালতে দেনমোহরের মামলা দায়ের করে, তারিখ ১৮ জুলাই ২০২২ইং। এ নিয়ে মুক্তাগাছার মেয়র সাহেবের বাসায় বসা হয়, কয়েকবার সেখানে তনু ও তার মা ভুল স্বিকার করে মাফ চায় এবং মেয়র কাকার নির্দেশনায় তনু তালাক প্রতাহার করে ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ সালে দিবাগত রাতে এবং পরদিন মুক্তাগাছার মেয়র সহ সকলের সমানে আমন্ত্রিত অতিথি আহ্বায়ক বিলকিস খানম ও সিনিয়র যুগ আহ্বায়ক স্বপ্না খন্দকার, ইসরাত জাহান (তনু)কে সভাপতি ও তার ভাগিনী সোমা খাতুনকে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হোন।

স্বামী থাকা সত্বেও বর্তমানে ইসরাত জাহান তনু, একজন পুরুষে নয়, তিনি বহু পুরুষে আসক্ত । যার সর্বশেষ প্রমান হোটেল ঢাকা রিজেন্সী, খিলখেত (তাং ১০, ২১ শে ডিসেম্বর ২০২৩ ইং)। তনুর করা ১০ ও ২১ ডিসেম্বর ২৩ ইং তারিখের কুকর্ম ধামাচাপা দিতেই তিনি গত ১৬ জানুয়ারি ২৪ইং তারিখে তার পরকীয়া প্রেমিক নিশাতের সহযোগিতায় মো.খায়রুল ইসলাম মনি নামে তার করা মিথ্যা ধর্ষণের মামলা করে।

ডিভোর্সের বিষয়টা মো.খায়রুল ইসলাম মনি গত কয়েকদিন আগে জেনেছেন বলে দাবী করেন । এটা তনু গোপন করে রেখে ছিলো এবং গত ৩ এপ্রিল ২৪ ইং তারিখ সন্ধায় তার মামার বাসায় (ঢাকা) আলোচানার নামে ডেকে নিয়ে মো. খায়রুল ইসলাম মনি’র নিকট ২ লাখ টাকা চায় কমিটি ফেরত আনবে বলে । এ সময় ইশরাত জাহান তনু জানান, ১.৪০ হাজার টাকা কেন্দ্রে দিতে হবে, সাথে মন্ডা ও শাড়ী । সারা দেশে তনুর অপকর্ম ফাঁস হয়ে যাওয়া ঘটনাটি টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে।

রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটন বিরুদ্ধে হয়রানী মূলক মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

রাকিবুল হাসান আহাদঃ
প্রকাশিত: সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৭:১৬ পিএম
রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটন বিরুদ্ধে হয়রানী মূলক মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

রাজশাহীর সিনিয়র সাংবাদিক এটিএন বাংলার স্টাফ রিপোর্টার সুজাউদ্দিন ছোটনকে ফাসানোর জন্য চাদাবাজি ও যৌন হয়রানির মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে পরিকল্পিতভাবে ১০ জুলাই রাত সাড়ে আটটায় চাঁদাবাজি মামলা এবং রাত সাড়ে নয়টায যৌন হয়রানির মিথ্যা মামলা করেছে বলে জানা গেছে ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় আলোচিত এই দুই মামলার মধ্যে চাঁদাবাজির মামলার বাদী নগরীর কুখ্যাত সুদ কারবারি, একাধিক চাঁদাবাজি ও সাইবার ক্রাইম অপরাধ মামলার আসামি আয়েশা আক্তার লিজা, তার
বিরুদ্ধে সাবেক একজন সংসদ সদস্যকে ব্ল্যাকমেইল করে বিপুল অর্থ সম্পদ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও সুদের টাকা খাটিয়ে সাদা স্ট্যাম্প ও ব্ল্যাংক চেকের খপ্পরে ফেলে কৌশলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এই নারী। টাকা না পেলে আদালতে মামলা ঢুকে দিচ্ছেন। অন্তত ৩০ জন ব্যক্তি লিজার কাছ থেকে সুদে টাকা নিয়ে মামলার আসামি হয়ে এখন আদালতের বারান্দায় ঘুরছেন।

অপর মামলাটির বাদী সাংবাদিক পরিচয় দানকারী তাজমিরা তাবাসসুম নামের এক নারী। তিনি যৌন হারানির মিথ্যা মামলা করে বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নেন বলে অভিযোগ রয়েছে। গতবছর এই নারীর দায়ের করা যৌন নিপীড়ন মামলায় আরো কয়েকজন সাংবাদিক আসামী হিসেবে এখনো আদালতের বারান্দায় ঘুরছেন। তাসমিরা তাবাসসুমের বাড়ি নগরীর চন্দ্রিমা থানা এলাকার ভদ্রা জামালপুর বলে জানা যায়।

এসকল নারীদের সাথে থানা পুলিশের সখ্যতা রয়েছে বলে পেশাদার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে হয়রানি করার একাধিক অভিযোগ উঠেছে।

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএমইউজে) এর কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব সোহেল আহমেদ সাধারণ সম্পাদক শিবলী সাদিক খান ঘটনার বিস্তারিত জেনে বিষ্ময় প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দ্রুত সাজানো ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিলের আহবান জানিয়েছেন।

গোহালকাঠীর রাস্তার বেহাল দশা; দেখার কেউ নেই

রিয়াদ গাজী,ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩:৪৯ পিএম
গোহালকাঠীর রাস্তার বেহাল দশা; দেখার কেউ নেই

দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নের গোহালকাঠী গ্রামের একমাত্র রাস্তার অবস্থা বেহাল। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন গোহালকাঠী গ্রামের হাজারো মানুষ।

জানা যায়, উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নের নরউত্তমপুর-গোহালকাঠী প্রধান সড়ক গোহালকাঠী থেকে ভোটকেন্ড পর্যন্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা। গোহালকাঠি গ্রামের বাসিন্দাদের একমাত্র রাস্তা। প্রায় ২০ বছর আগে৷ রাস্তায় ইট বিছানো হয়েছিল। কিন্তু এখন বেশিরভাগ ইটই মাটি থেকে উঠে খানা-খান্দ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে অল্প বৃষ্টি হলেই এ রাস্তা দিয়ে আর চলাচল করা যায় না।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, এ রাস্তার ইট উঠে গিয়ে ছোট-বড় খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। অনেক জায়গায় রাস্তার দু’ধারের মাটি সরে গিয়ে রাস্তাগুলো ভেঙে পড়েছে। ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা, ভ্যানগাড়ি ও মোটরসাইকেল আরোহীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তাগুলো ডুবে কাঁদা সৃষ্টি হয়। যার ফলে এ রাস্তা দিয়ে আর চলাচল করা যায় না।

অটোচালক হানিফের বাড়ি গোহালকাঠী। অটো চালিয়েই চলে তার সংসার। রাস্তা নিয়ে তার অভিযোগ, উপজেলার কত রাস্তা ঠিক হচ্ছে, কিন্তু আমাদের রাস্তা হচ্ছে না। মাঝে মধ্যে মনে হয় আমরা এ দেশের জনগণ না। তিনি আরও বলেন, ভাঙা রাস্তার কারণে অটো বেশিরভাগ সময়ই টেনে নিতে হয়।

সুমন মিয়া, রিয়াদ গাজী, কুদ্দুস খান, জাকির হাং সহ স্থানীয়রা জানায়, গোহালকাঠী গ্রামের বাসিন্দাদের একমাত্র রাস্তা হলো এটি। আমাদের দুর্ভোগের শেষ নেই। প্রায় ২০বছর পূর্বে এ রাস্তাটিতে ইট বিছানো হয়েছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত রাস্তাটি আর পাকা হয়নি। দুঃখের বিষয় গত তিন বছর ধরে রাস্তার বিভিন্ন অংশের ইট সরে গিয়ে গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তাটি চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পরে। এমনকি গ্রামের মধ্যে রিক্সাওয়ালারাও আসতে চায় না।

এ বিষয়ে দপদপিয়া ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার সুজাত শিকদার বলেন, এই মুহূর্তে কোনো বরাদ্দ না থাকায় রাস্তাটি কবে নাগাদ ঠিক করা হবে তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে আমাদের মাথায় আছে। স্থানীয়দের দাবি বর্তমান উন্নয়ন বান্ধব সরকারের কাছে আবেদন জানাই অতি দ্রুত রাস্তাটি যেন সংস্কার করা হয়।

কোটা বৈষাম্যের বিরুদ্ধে সিলেটে শিক্ষার্থীদের ১ দফা আন্দোলন

সিলেট প্রতিনিধি মোঃ ফখর উদ্দিনঃ
প্রকাশিত: রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪, ৯:২৪ পিএম
কোটা বৈষাম্যের বিরুদ্ধে সিলেটে শিক্ষার্থীদের ১ দফা আন্দোলন

সকল গ্রেডে অযৌক্তিক ও বৈষাম্যেমুলক কোটা বাতিল করে সংবিধানে উল্লিখিত অগ্রসর গোষ্ঠী ও বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধীদের) জন্য কোটাকে ন্যূনতম পর্যায়ে এনে সংসদে বিল পাস করার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

সিলেটে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আয়োজনে ১৪ জুলাই রবিবার সন্ধ্যা ৭টায় নগরীর চৌহাট্টাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে মশাল মিছিল বের হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কোর্ট পয়েন্টে এক বিক্ষোভ সমাবেশে মিলিত হয়।

এম.সি কলেজের শিক্ষার্থী তানজিনা বেগমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাকিব আহমদ, এম.সি কলেজের আয়শা আক্তার, লিডিং ইউনিভার্সিটির বুশরা সুহাইল, সিলেট সরকারি কলেজের সানি, সরকারি মদনমোহন কলেজের আল মাহমুদ, রাজু আহমদ, মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সির মাশরুখ জলিল প্রমুখ সহ সিলেট বিভিন্ন কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষাবৃন্দ।
সমাপনী বক্তব্যে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সির শিক্ষার্থী তারেক আহমেদ বলেন, কোটা সংস্কারের ১ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আমরা সিলেটের জেলা প্রশাসক শেখ রাসেল হাসানের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছি। স্মারকলিপিতে সংসদে জরুরি অধিবেশন ডেকে সরকারি চাকরির সকল গ্রেডে শুধুমাত্র পিছিয়ে পড়া/ অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জন্য ন্যূনতম (সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ) আইন পাস এবং দেশের বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন কালে যে মামলা করা হয়েছে তা তুলে নেয়ার দাবী জানানো হয়েছে। আমাদের দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা তাদের বক্তব্যে বলেন, আমাদের সর্বজনশ্রদ্ধেয় মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধে অংশগ্রহণকালে ব্যক্তিগত কোনো সুবিধা চেয়েছিলেন কিনা জানিনা। দেশ স্বাধীন করার পর স্বাভাবিক নাগরিক সুবিধা ব্যতিরেকে বাড়তি কোনো সুবিধা চেয়েছিলেন, এমনটি কোথাও পাই নি আমরা। এমনকি জীবিত আছেন এমন হাতেগোনা মুক্তিযোদ্ধারাও বাড়তি সুবিধা দাবি করছেন, এমন কিছু শুনছিও না আমরা। আমরা ইতিহাস পড়ে, জেনে, শুনে এতটুকু নিশ্চিত যে, এ ভূ-খন্ডের উপর তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের করা নানান সীমাহীন বৈষম্য আর অন্যায়ের বিরুদ্ধে ওনারা যুদ্ধে গিয়েছেন, জীবনবাজি রেখে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। আমরা তাদের সম্মান করি, তাদের যেকোনো সময়ের অসচ্ছলতা, অসুস্থতা, দুর্বলতার প্রেক্ষিতে সহযোগিতার হাত বাড়াতে চাই, তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়াতে চাই। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সরকার তাদেরকে ও তাদের পরিবারের পাশে থেকেছে, বিপদে-আপদে সহযোগিতা করছে। বর্তমান সরকারের আমলে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা আরও সম্মানজনক অবস্থানে এসেছে। চিকিৎসা সহ জীবনধারণের প্রয়োজনে বাড়তি আরও সুবিধা সংযুক্ত হয়েছে।

এমতাবস্থায়, চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা কিসের প্রেক্ষিতে, কোন স্বার্থে? এখন না মুক্তিযোদ্ধারা চাকরির প্রতিযোগিতায় নামবে, না তার ছেলেমেয়েরা চাকরিতে প্রতিযোগিতা করবে? ৩য় প্রজন্ম তথা নাতি-পুতিদের জন্য কোটাকে ‘মুক্তিযোদ্ধা কোটা’ নাম দেওয়া কি আদৌ মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সম্মানজনক দেখায়? এটাকে ‘মুক্তিযোদ্ধা কোটা’ বলে মুক্তিযোদ্ধাদের করুণা/ দীন-দক্ষিণার পাত্র না করে কষ্ট করে ‘নাতি-পুতি কোটা’ নামে প্রচার করুন। এতে আমাদের মুক্তিযুদ্ধ আর মুক্তিযোদ্ধারা অসম্মানের হাত থেকে রেহাই পাবে অন্তত।

এই অস্বাভাবিক কোটা ব্যবস্থা কত প্রজন্ম পর্যন্ত, কত বছর পর্যন্ত চলবে? এই কোটা কি এখন বৈষম্যের পর্যায়ে চলে যায়নি? এই কোটা ব্যবস্থার আড়ালে কি এখন অযোগ্য, অথর্বরা বাড়তি সুবিধা পাচ্ছে না? আমরা সিলেটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা সবসময় বৈষম্যমূলক কোটার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছি। ১৮ তে আমরা ছিলাম, ২৪ সালেও আমরা রাজপথে আছি ইনশাআল্লাহ। এই দেশে সরকারী চাকরির ক্ষেত্রে কোনো বৈষম্য থাকবে না। আমরা এবং আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম তাদের বাপ দাদার কোটায় চাকরী নয় তারা যেনো মেধার ভিত্তিতে চাকরী পায়।

রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটন বিরুদ্ধে হয়রানী মূলক মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ গোহালকাঠীর রাস্তার বেহাল দশা; দেখার কেউ নেই কোটা বৈষাম্যের বিরুদ্ধে সিলেটে শিক্ষার্থীদের ১ দফা আন্দোলন সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা ময়মনসিংহে জলাবদ্ধতার কারণে বন্ধ হওয়ার পথে সাইফুল ফিলিং স্টেশন; সিটি কর্পোরেশনের দৃষ্টি আকর্ষণ ময়মনসিংহের বোররচর ইউনিয়নে চলছে রমরমা জুয়া খেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ জরুরী দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশে সড়কের শাহজাদার হুমকি ধামকির মোকাবিলা করবে সাংবাদিক সমাজ শেরপুরে পুলিশের এএসআই এর অঢেল সম্পদের পাহাড় আদালতের নির্দেশনায় তদন্ত করছে দুদক সাংবাদিকতায় দায়বোধের সীমানা এবং উইদাউট বর্ডার রাঙামাটি ছাত্রলীগের কমিটিতে অছাত্র বিবাহিত চাকরিজীবী টেন্ডারবাজ নিয়ে নতুন কমিটি গঠন ময়মনসিংহে মাদক মামলায় জামিনে এসে হাবিসহ দুই যুবকের রমরমা ইয়াবা ব্যবসা লুটপাট আর টাকা পাচারে কারা এগিয়ে “পারলে তারা গণমাধ্যমেরও কবর রচনা করতে চান” ময়মনসিংহের শুভ হত্যার মামলার ৬ আসামীর জামিন না মঞ্জুর করেছেন আদালত সিএমপি কমিশনার উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক সাইফুল ইসলাম যোগদান করলেন সাংবাদিকদের বিতর্কিত করায় লাকীর বিরুদ্ধে এক হাজার কোটি টাকার মানহানী মামলার ঘোষণা- বিএমইউজে শেরপুরে পাহাড়ী ঢলে ৩ উপজেলার বাঁধ ভেঙ্গে কমপক্ষে অর্ধশত গ্রাম পানিবন্দি বিএমইউজে’র ফেনী জেলা কমিটির সভাপতি সাঈদ খান সাধারণ সম্পাদক মাসুম বিল্লাহ ভূঁইয়া লায়লা কানিজ লাকী’র বক্তব্যে বিএমউজে’র নিন্দা; প্রতিবাদ সভা মানববন্ধনের ডাক লাকী‘র বেদবাক্যে অন্ধ বিশ্বাসীরা সাংবাদিকদের বিতর্কিত করতে বড়ই উৎসাহী বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ইউনিয়ন নওগাঁ জেলার সভাপতি খোরশেদ সম্পাদক হাবিব নির্বাচিত গোয়াইনঘাটে শ্যাম কালা ও রয়েলের নেতৃত্বে চলছে সীমান্তে চোরাচালান ব্যবসা গফরগাঁওয়ে বাঁশঝাড়ে কিশোরী প্রেমিকা ধর্ষণ প্রেমিককে গ্রেপ্তার মহানবী (সা.)-এর ঈদের প্রবর্তন ও বিদায় হজ্জের ভাষণ ছাগলকান্ডে আলোচিত মতিউরকে সরিয়ে যাদের স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে বাঙালির প্রতিটি অর্জনে আওয়ামী লীগ ওতপ্রোতভাবে জড়িত -শেখ হাসিনা ময়মনসিংহে নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা আসামী গ্রেপ্তার; রহস্য উদঘাটনে কোতোয়ালী পুলিশ ছাগলই বিশাল সম্পত্তির ইতিবৃত্ত বের করে দিল রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমানের  দুদকের মুখোমুখি ৪৩টি দপ্তরের সরকারি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ময়মনসিংহে তরুনী গণধর্ষণ পূর্বক হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে কোতোয়ালী পুলিশ; গ্রেপ্তার-৩